বিভিন্ন গ্রামের অল্প বয়সে মেয়েদের বিয়ে দেয়া হচ্ছে।বারুইপুর হাতচারা উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রের স্বাস্থ্যকর্মীদের উদ্যোগে বাল্যবিবাহ ও শিশুশ্রম সচেতন শিবির!

মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় বারুইপুর হাতচারা উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রের স্বাস্থ্যকর্মীদের উদ্যোগে বাল্যবিবাহ ও শিশুশ্রম সচেতন। 

আজ ধোসা চন্দনেশ্বর অঞ্চল শ্যামনগর হাতচারা অভয়নগর উপ স্বাস্থ্য কেন্দ্র বাল্যবিবাহ ও শিশু শ্রম বিরুদ্ধে বার্তা দিলেন।সহযোগিতা করলেন বারুইপুর পল্লী উন্নয়ন সমিতি। হাতচারা উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রের আশা দিদিরা বলেন। বিভিন্ন গ্রামের অল্প বয়সে মেয়েদের বিয়ে দেয়া হচ্ছে। তাতে খুবই সমস্যায় পড়ছে এমন মেয়েরা। এমন মেয়েরা কেমন সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে ও সেই সমস্ত কথা তুলে ধরেন বারুইপুর পল্লী উন্নয়ন সমিতির সদস্য মদন কুমার সরদার বলেন। গ্রামের মেয়েদের কে কম বয়সে বিয়ে দেওয়া তাদেরকে পরিপূর্ণ বয়সে বিয়ে না দেওয়া। এই সমস্ত মেয়েরা বাচ্চা জন্ম দিলে পরিপূর্ণ হয় না। তাতে জীবনের ঝুঁকি থাকে এই সমস্ত এছাড়া বলেন। ভারতের আইন মোতাবেক মেয়েদের পূর্ণ বয়সে বিয়ে দেওয়া। উচিত কিন্তু গ্রামের সচেতন করার জন্য তাই আমরা এগিয়ে এলাম। হওয়ার কারণে এমন সমস্যায় পড়েন গ্রামের মানুষ তাই আমাদের এই বার্তা দেওয়ার উদ্দেশ্য।

Recommended For You